অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়-এর কবিতা

বিখ্যাত প্রেমের কবিতা

এভারেস্টের উপর দিয়ে যাচ্ছে এরোপ্লেন

কেন এই অবিশ্বাসী সহযাত্রীদের মাঝে থাকবো

শৃঙ্গের বরফ বিশ্বাস করে ফিরে আসবো তোমার কাছে

ঘননীল কালমেঘ পাতা রাখবো তলপেটে, উপহার।।

লক্ষ্য করে দেখেছি মেটে রান্না করার সময়

এক প্রকার নীলচে আভা তৈরি হয় – সরিষার তৈল

স্পর্শে যাহা ক্রমে সবজে বর্ণ ধারণ করে।।

এভারেস্টের চূড়া ছুঁয়ে যাচ্ছে এরোপ্লেন

ইহাই সত্য – আমি কফি খেতে ভালোবাসি

তাও সত্য – তোমার গোড়ালি বুড়ো আঙুল চেপে

রক্তশূন্য করে দি

শরীরে প্রবিষ্ট বেল কাঁটাটিকে

আমার আর সহ্য হচ্ছে না জাস্ট…

ফ্ল্যাটে

দরজা খুলেই মনে হল ফ্ল্যাটে বিড়াল পড়েছিল

আমার অনুপস্থিতি কেন্দ্র করে

যে বিড়াল এ’ঘর থেকে ও’ঘর পায়চারি করেছে

ব্যকরণসম্মত ভাবে সে এ বাড়ির কর্তা

সারা বাড়িময় ছড়ানোছেটানো বরফকুচি

যেন ইওরোপীয় আভিজাত্যে টসটসে আসবাবপত্র

মায় শেভিং কিটও…

সারা রাস্তা জুড়ে কৃষ্ণচূড়ার পাকা পাতা পড়ে রয়েছে

এই দৃশ্যটিকে জানালা থেকে সাধারণ হলুদ মনে হয়

যেমন বহু ব্যবহারে স্যান্ডো গেঞ্জিটি খুইয়েছে তার আলো

কৃষিকাজে তো বিড়ালের কোন অবদান ছিল না কখনো

অনুমেয়, এই ফ্ল্যাটে লুব্ধ ভাত নেই

ফ্রিজের দরজা খুলে বিড়ালের ঘাড় হতে একমুঠো

রোশনাই বার করে আনি

মাইক্রো খারাপ হয়েছে

ফ্ল্যাটে সম্ভবত বিড়াল পড়েছিল…

Facebook Comments

1 thought on “অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়-এর কবিতা Leave a comment

Leave a Reply