মনীষা চক্রবর্তী-এর কবিতা

গ্রন্থ 

কেবল তাকিয়ে থাকা

আর ছোটো খাটো গাছের ডগায়

নিজেকে খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা

তারই মধ্যে যখন কিছুটা সুন্দর খুঁজে পাই

ছুঁচ বিঁধিয়ে ক্রমশ সাজিয়ে ফেলি ঘটনা,

টুকটাক কালো শিরেগুলো কে ছিঁড়ে, সরিয়ে,

মুখের আলতো হাসি, কেউ কিচ্ছু টের পাবেনা

জলজ্যান্ত হাওয়ার মতো

শ্বাস প্রশ্বাস দিয়ে পেরিয়ে যাবো

সব সত্যি বহন করে ।

কেবল তাকিয়ে থাকা

আর নিখুঁত হয়ে সেই জালের প্যাঁচ গোনা,

ঠিক কতটা শক্ত হলে

ধ্রুব সেজে ওঠে তাদের পাতায় পাতায় …

তবে এই জন্মের সব গবেষণায়, যদি

রক্ত আর রক্ষায় ভালোবাসা দেখতে পাই

কথা দিচ্ছি

পরের জন্মে ঠিক ফিরে আসবো আবার

এই গ্রন্থেরই হাত ধরে, শান্তি হয়ে ক্রান্তির খাতায় ।

দিব্যি

সেই চিঠিরা একদিন

আমার হাতের পোশাক

পরে

বলেছিলো…

ঠিক ফিরিয়ে আনবো

ঘড়ির কাঁটা, তোমার

নামে,

তাই আজও বসে আছি

সেই অপেক্ষার গায়ে

বিশ্বাস মেখে,

জানি, হয়তো রদ্যি খাতার

শেষ পাতায়

চুপচাপ পড়ে থাকবে

ওই আমি আর সেই

দিব্যিরা,

যার ভার অনন্ত সময়

বহন করে যাবে

শুক্ল পক্ষের তারা…

সেই বেঁচে থাকা অংশে আজও পুড়েছি,

সিগারেটের শেষ চুমুকটুকু এখনো পড়ে,

তোমার স্বাদ হয়তো বিষাক্ত গন্ধের খবর

হঠাৎ কুড়িয়ে ফেলেছে ,

নিশ্বাসে প্রেম তাই আসেনি ফিরে,

জলে ঘোলা ওই প্রেমের খবর

কেউ কি দেবে আমায়?

সাত রঙ ছড়িয়ে পড়ছে শরীর খুঁড়ে,

সেই বেঁচে থাকা অংশে আজও পুড়েছি ,

মূহুর্তের শেষ চুমুকটুকু এখনো পড়ে …

Facebook Comments
Advertisements

Leave a Reply