স্বপন রায়-এর কবিতা

উদাসীন মল্ট

১৫.

দিয়া দিয়া শিরিণ শান্ত

কিন্তু এক সোপ অপেরাই, বোতামহীনা

রিয়াবোনা বেড়াবো না, কে জানতো

ও হোম, নিবাস ভল্যুম

সায়ংকালে দিয়া আর প্রদীপের চুক্তিতে

খর খর শব্দ হয়

রচিত কবরী আর তটহারা কটির

শব্দ হয়

নি

চু

শান্ত এক শিরিণ বোঝাপড়া ফাঁকা বেঞ্চের

১৬.

আলস্য গমের কাছে দূর

পান মুড়ে দেয়ার সময়, পানওয়ালা হাসে

ওয়ালিও হাসে, সুপুরি হাসি এর

খয়েরি হাসি ওর

চমনবাহারে মোড়া এলাচ লবংগ মুদ্রা

যেন আবছা দুরাই

ওই দূর থেকে যে রাইকে পটায় অথবা দুবারে

ঠিক পান নয়, তবে ঠিক মশলাবিহারও নয়

শুধু মুড়ে দেয়ার সময়

গম থেকে শিসের আলো, ঝলকালো, না

না না বলল যখন

কি যে আলস্য, মনে হল মন্থর উঠে শাড়ি পরে নিচ্ছে

আলাদা চুলের হল আলাদা রঞ্জক

ঠেসে ধরা মুখের ভিতরে হায় হায় উড়ছে দুপাট্টা

অস্ত সবুজ

জিহবাগার

গলে যাচ্ছে সব রস, জর্দানুপাতিক

১৭.

কাল ছুটি

একতলার ঝোঁক গাড়িবারান্দায় নিঝুম হল

দূরত্ব আর ধ্রুবতারা নয়

‘আবার দেখা হবে’ এরকম ব্রাহ্মী শরণাগত লেখ

পুরু আচারসংহিতায়

হাসির কাঁখে

পরোটায়

কাল ছুটি, আজ আঁচ

আজ ছ্যাঁকছোক শব্দ শুধু  

Facebook Comments

Leave a Reply