শৌভিক দে সরকার-এর কবিতা

দেশ

মেঘ ও অন্তরায় হয়ে ওঠা ফসলের বীজগুলি

পুঁতে দিচ্ছি গোপনে

মশারির নাইলনে ঘষে দিচ্ছি ব্যক্তিসর্বস্ব আঠা

আজ খুব ঘুম লেগে থাকবে চোখের আলস্য জুড়ে

আজ মাইল মাইল হাওয়ার ভেতর

উড়ে বেড়াবে আমাদের হাড়গোড়

অন্ধ হয়ে ওঠার অজুহাতে পা লিখব

হাতের তালুর ওপর!

দ্বেষ, বৈরী বাতাস নিয়ে লিখব

পাখির উঁচু হয়ে থাকা পা!

খুব সহজ সরল একটি মৃত্যু! পায়ের সার্বভৌমত্ব!

আকাশের দিকে ছুঁড়ে দেওয়া শুকনো

ক্ষয়ে যাওয়া পা!

মুণ্ডু

রোদের অন্য পর্বটিই কালো বেড়াল!

আমি নুয়ে পড়া শাশ্বত দেখি

মাংস সংলগ্ন দুপুরবেলাগুলির যৌথ ক্ষেতখামার

রোদ কাটছে কু-বাতাস

রোদের জরদ কেটে প্রতিভার কারুকাজ লিখছে

লঙ্কার ক্ষেত!

পৃষ্ঠা বাঁক নিচ্ছে

অক্ষর, দাগ, ভুল কালির ক্রমগুলি ডিঙ্গিয়ে

পা ফেলছে রোঁয়া ওঠা বেড়াল

হাড়ের জাঙাল আর দশচক্র কাকতাড়ুয়া

সমষ্টি রহিত একজন কাকতাড়ুয়া লক্ষ্য করছে এইসব! 

Facebook Comments
Advertisements

Leave a Reply