ফারাহ সাঈদ-এর কবিতা

জন্মদাগ

জন্মদাগ মিটিয়ে ফেলতে নেই। রক্তের ভেতর সে এক জমাট জবা ফুল। যেনো রক্ত কণিকায় চাবুক বিরোধী কোন যুবক ট্রাফিক রুমের আলো নিয়ে খেলছে। সামনেই বন্ধ দুয়ার। চামড়া ঠেলে নতুন এক তিলের কসম তৈরিতে ব্যস্ত সে নাবিক জলের নি:শ্বাস ভেঙে ফেলে ! ফিরিয়ে দিতে শামুকের ছলাছল, প্রতিদিন এক থালা চাঁদকে ঠোঁটের কাছে এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই তার কাজ।
ডেকে যায় ত্বকের গালিচা, খুব ভোরে, ও ফিরে আয়, ফিরে আয়, দুলকি দোলে তিলের জমজ ভাই।

মসৃণ মদ

ধরো, মাতাল-রাস্তা এক নিরুদ্দেশে ডাকছে তোমায়,
নিলামে মসৃণ মদ তবু শত তৃষ্ণা বাজি রেখে তুমি চলে যাচ্ছো।
তারপর হঠাৎ, যিশুর সঙ্গে দেখা! নিসর্গ সইতে না পেরে
যিনি এখন চোলাই মদ বিলি করছেন। দিলেন তোমাকেও এক মুঠো
কাঁধে কাঁধ, তুমি আর যিশু
আতপসিদ্ধ দিনে
উলঙ্গ দুটি হাতের ইশারায় ডুবে যাচ্ছো তুমি
শেওলা পাড়ার কথা ফুরিয়ে
স্বর্গ-নরক ছেঁড়া ক্লান্ত ঘুড়ির মত
অতপর বোতল ভর্তি বড়দিন নিয়ে তুমি ফিরে এলে ডিসেম্বরে।


Profile_Pic_Farah_Said

পরিচিতি : জন্ম ঢাকায়। বর্তমানে ক্যালিফোর্নিয়ায় সরকারি প্রসাশনে কর্মরত। লেখালেখির শুরু ঢাকায় স্কুলজীবনে। কম্পিউটার সায়েন্সে মাস্টার্স করেছেন ইংল্যান্ড থেকে। প্রকাশিত বই – ‘একগোছা নদী’ (গল্প; ২০১১), ‘ফ্রেঞ্চ খোঁপায় শ্বাসরুদ্ধ চুলের জোছনা’ (কবিতা, ২০১৩), ‘পৃথিবীর নিচু ছাদ প্রেম’ (কবিতা, ২০১৬)।

Facebook Comments
Advertisements

Leave a Reply