শুভজিৎ গাঙ্গুলি-এর কবিতা

লন্ঠনে অবাক দিনমান

(এক)

পৌষ্টিক প্রকোষ্টের রাত তিরতিরে ডাক
ব্যাঙ আর যৌবনকে আলাদা করে দিচ্চে

এই ১ স্নায়ুর খেলা

ত্রিপল টাঙিয়ে এসেছি ভিতরে ভিতরে আয়ু
বাড়ছে এই থতমত সংহারে

সে প্রণালী বেয়ে নেমে এলো পরাণ ফুলের গন্ধ মেখে প্রণয় খুলে

ত্রিপল ভেঙে যাচ্ছে

ডাঁসা ডাব আর আখের রস চিনে নিচ্ছি
এখন এখানে পরিমিত থমথমে

ওরা এতো ডাক ছাড়ছে কেন? ডুমুর ফুলের গন্ধ পাচ্ছি না

টকটকে শিরশিরে দেহ

শরীরে প্রকোপ বাড়ছে শাবলে শাবলে সাঁতার কাটা হবে

 

(দুই)

ঘুটঘুটে মাঠ আর ঢ্যামনা সাপ খোলস পাল্টে নিল খাবলে খাবলে খুশি

এখন নড়াচড়া নেই চড়া রোদ মেখে চড়ুই
ন্যাংটো হয়ছে খুব

অথৈ ডাক নিবে গেলে গোল মতো বছর হবে

বালকে বিকেল কলরব

শিশিরে উথলে যাবে রাত নোলকে ভোর লেগে
নূপুর হবে বালিকার

জ্বর জড়িত রক্ত আর বাদামী বৈরাগ্যে ফিরে
আসছে ফকির

আমি ফুড়ুৎ উড়িয়ে যাবো কোনো ১ রোব্বার দেখে

রগরগে তারাতে


Profile_Pic_Shubhajit_Ganguly

পরিচিতি : প্রথম দশকের কবি শুভজিৎ গাঙ্গুলির জন্ম ১৯৯৮ সালে বাঁকুড়ায়, গ্রামের নাম শিরোমণিপুর। মিনমিনে, মুখচোরা। শখ – কাক দেখা কাক শেখা আর কাক শোনা।



Facebook Comments
Advertisements

Leave a Reply