অরূপরতন ঘোষ-এর কবিতা

প্রজাতান্ত্রিক কবিতা. ২. তাঁতঘর

সকাল থেকেই ফের কিছুটা উচ্ছ্বাস আর উদ্বেগের চোরাস্রোত অনুভব করছি।

দেশীয় প্রযুক্তি নিয়ে কথা বলতে বলতে
বর্ণনার মধ্যিখানে থেমে গেছি আমি..

না কবিতা এক বিপজ্জনক অভ্যাস,
হা হা অন্ধকারে হাঁটার সময়
তা লিখে রাখা সম্ভব নয়

এই শেষ তাঁতঘরে
যেমন নিভেও নেভেনা বিছানা,
চিহ্নবিমুখ হৃম্‌ ও চুড়ির শব্দে

প্রজাতান্ত্রিক কবিতা. ৭. সামন্ততান্ত্রিক

গোটা এক মে মাস চলে গ্যালো
একটিও কবিতা লেখা হল না—
কুলগাছের পাশে বিমর্ষ তারাটির মত বসে থাকি
মেঘ আসে, চলে যায় রিক্সার শব্দের মত
রাস্তায় লোক চলাচল, মোটরযান

আমার দৃষ্টিরেখায় সমস্তই বেগমান
শুধু ওই কুলগাছ, যা কিনা
মোটা দামে কিনে নেবে বলেছে দোকানী
তাকেই পাহারা দিই আর ছোটো ছেলে ঘুমায় যখন
তখন উড়িয়ে তাড়িয়ে দিই পাখি ও
গ্রীষ্মমন্ডলের রঙীন ও চতুর সব পোকামাকড়

ঘিরে রাখি অঞ্চল স্নেহ ও সংযমে!

Facebook Comments

1 thought on “অরূপরতন ঘোষ-এর কবিতা Leave a comment

Leave a Reply