পৌলমী গুহ-এর কবিতা

একটি হত্যা

সময়ের হাতে ছেড়ে দিই
রাশি রাশি দুঃখ।
তারপর ঘর থেকে নেমে আসি।
মাঠ-ঘাট, ধুলো-বালি ইত্যাদি।
তুমিও ঘ্রাণফুল থেকে দূরে
বেদনা হয়ে আছো।

সপ্তম অ-কার

হঠাৎ আকাশে জ্বলে উঠলো,
সুতীব্র লন্ঠন।
মানচিত্রে ধরলো না বলে,
আদিমতম গাছ ছেঁটে ফেললো।
তাও ইতি-উতি উঠোন ছড়ালে,
তুলসীতলা কেঁদে ওঠে।
দু’চোখে নিবিড় বর্ষা।
মানচিত্রে ধরলো না…

হনলুলুর গান

আঙুলের চাপে মানুষ মুছে যায়।
রিংটোনে একঘেয়ে তর্ক।
সময়োপযোগী লেখা হয়নি অতএব,
এবারের মতো ফেল।
টায়ারের পোড়া গন্ধে সুন্দরী,
তুমি অনুগত আশ্লেষে মেলো বৃন্তকলি।
শহরের বুকে লাথ মেরে বলে ওঠে কেউ,
আর কিছু বাকি নেই!

আর কিছু বাকি থাকে না তারপর।

Facebook Comments

Leave a Reply