পিয়াল রায়-র কবিতা

fail

কিছু রাজনীতি কিছু ব্যাকরণ




১৮.

আগুন, বল্লম আর নীল একটা রাত্রি
জেগে আছেন ঈশ্বর
করুণাঘন চোখ

অস্ত্র বাঁচায় যাদের
অস্ত্রই তাদের মৃত্যুর কারণ

মালখুস, যাও, দৌড়ও
নইলে ওরা নিয়ে যাবে তোমাকে
তোমার আত্মা পুড়িয়ে পুঁতে দেবে
বেশ্যার পায়ে

ওরা বন্দী করেছে ঈশ্বরকে
শিকল আর কাঁটার মুকুট
হাসতে হাসতে বলছে
আগামীকাল সূর্য উঠবে না আর

তুমি দৌড়ও
ঠোঁটে নাও প্রেমের চুম্বন

শুধু একটা চুমু
             ব্যস খতম




১৯.

আগে কালেভদ্রে শোনা যেত
এখন প্রায়ই শুনি
তক্ষকের ডাক

দেশ বলতে নিজেদের আর কিছু নেই
তাই ঝোপেঝাড়ে বাড়ছে বংশ
বাড়ছে পিঁপড়ের মতো

ষাট লক্ষ তক্ষক মেরেছিল
পোকাদের রাজা
তক্ষক রাজকুমারীর প্রতি ব্যর্থ প্রেমে

আমরা দেখিনি কিছু
কেউই দেখেনি
কেবল শুনেছি একটা নিষ্ফল প্রেম
ষাট লক্ষ প্রাণের সমান

এসব শুনেও বলিনি কিছু
এখনও বলছি না
অকেজো প্রেম অথবা প্রাণ
একই রকম ক্ষতিকর

কেউ হরণ করে প্রেম

কেউ বা প্রাণ




২০.

মাঝরাতে অট্টহাস্য শুনলে মনে হয়
দুনিয়াটা বেবাক ফাঁকা
ফাঁকাময় জল স্থল অন্তরীক্ষে
পাগলা একটা দুনিয়া জেগে আছে

এটুকুই যথেষ্ট নয়?
তবু তাকে ক্রুশবিদ্ধ দেখতে
বিপুল জলোচ্ছ্বাস উন্মত্ত হল
সমবেত হাত তুলে
জাগিয়ে দিল ভয় তাদের জন্য
যারা অনুপস্থিত ছিল

যাদের কোনো রাজা নেই
নির্দেশ আসে না ওপরতলার
যাদের স্বাধীনতা প্রবাদতুল্য
ভয় পেল
পাপের কুয়াশা বুঝি তাদেরও
গ্রাস করে নেবে

পৃথিবীকে ক্রুশবিদ্ধ করেছে ওরা
রক্তাক্ত করেছে

যাদের কোনো রাজা নেই
কেঁদেছে আর চুপচাপ
বেড়ে গেছে সংখ্যায়











Facebook Comments

Leave a Reply