পৌলমী গুহ-র কবিতা

fail

গল্পের মতো অথবা নয়

মুখে গামছা বাঁধা কিছু লোক এসে জানতে চাইলো,
“আশরফির বাড়ি কোনটা?”
চলকে উঠলো চা।
জিভ পুড়ে গেলো।
একটি যুবকের ভয়ানক পরিণতি দেখবে না বলে,
কাকেরা উড়ে গেলো তার ছেড়ে।

সময় কাটে না…
হঠাৎ দেখি আশরফির শীর্ণ পরিশ্রমী হাতে,
এক প্যাকেট চাল তুলে দিচ্ছে ওরা!

আমি বুঝি, রাষ্ট্রকে ভয় পেতে শুরু করেছি।
অবিশ্বাস, আতঙ্ক
আমার রাষ্ট্রপ্রেমের শত্রু হয়ে দাঁড়িয়েছে!

ভিন্নার্থক

মরুভূমির মতো বুক পেরিয়ে
যেখানে এসে পৌঁছোলাম,
সেখানে সারি সারি ক্ষতঋণ।
গতজন্মের ব্যথা টিপ করে পরেছি,
উত্তুঙ্গ যৌবন ছাপিয়ে পাঁজর উঁকি দেয়।
পায়জোর ছিঁড়ে পড়ে রাস্তায়।
কোথাও পৌঁছোনো হলে
গন্তব্য হারিয়ে যায়।

জলভরা কথাগুলো

রিমোট চেপে দুঃখ মুছে দিই এসো।
আর কিছু হবে না,
এই আশায় খড়-মাটি জড়ো করে আনি।
সারা দুপুর ঘর বানাই।
বিন্দু বিন্দু ঘাম মিশিয়ে আলতা পরাই,
চুল বেঁধে দিই।
বুক ছেঁকে ঠোঁট দু’টো ডালিম কোয়া।
এইবার যাও দেখি,
হেলায় জয় করো পৃথিবী ডার্লিং,
আমি ভাত বেড়ে রাখবো।

বসবাস

বুকে হেঁটে পার হয়ে আসে শৈশব।
কাঁথা গায়ে ঘুমোচ্ছে,
শীত শীত দুঃখেরা।
বিকেল বসে আছে একা।
বিকেল জেগে আছে…

Facebook Comments

Leave a Reply