কাজল চক্রবর্তী-র কবিতা

fail

এসো বায়ুসখা

করোটি শহর হয়ত এখন সাড়ে সাত হাত দূরে
করোনা রোদে দাঁড়িয়ে আছি মুখ ঢাকা কাপড়ে
রোদের কী তেজ! খর বোশেখে ত্রাহি ত্রাহি রব
চিকিৎসাহীন মরবে মানুষ, এমনই উৎসব।

শহরে থাকার আয়ুধ যোগাই হিসেব ক’রে ক’রে
পরিবর্তে শাসক আঁচল ওড়ে হুমকির সুরে –
‘ছোট্ট কথা – ঘরে থাকুন সুস্থ থাকুন, বোঝাতে পেরেছি!’
আকাশ যাদের ঘরে চালা, তারা করবে কী?
‘এ ভাবনা আমি ভাববো, ফালতু কথা রাখুন
গরীব যারা মৃত্যুমুখে, ওদের পাশে থাকুন’

ভানুমতির চলছে খেল, বাদ্যি ছক্কা-পাঞ্জা
চাকর শ্রেণির মধ্যবিত্ত হচ্ছে তাদের বান্দা
ক্ষমতালোভী বণিজদাস শাসনদণ্ড হাতে
বলছে ‘মিত্রো সামনে সুদিন থাকুন অপেক্ষাতে’

আতঙ্কাশ্রমে : দুই

যে ঠোঁটে বহুবার ঠোঁট রেখেছি
শরীরে বিঁধিয়েছি শরীর
আমি জানি এখন হাত বাড়ালেই
আমাদের মধ্যে এসে দাঁড়াবে সেই অদেখা ভয়…

ভয় বদলে দেবে আমাদের শরীরের খিদে
ভয় বদলে দেবে আত্মিক সম্পর্ক অনায়াসে
ভয় কাঁপিয়ে দেবে পরস্পরের নির্ভরতার সেতু
কিন্তু তারপরে যখন সবাই একজোটে
ঘুরে দাঁড়াবে নিজেদের প্রতিরোধ ক্ষমতায়
আতঙ্কাশ্রম ছেড়ে এসে দাঁড়াবো ময়দানে
যে অদেখা ভয় কাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে সারা বিশ্ব
তাকেই বন্দী করে রাখবো অন্য এক আতঙ্কাশ্রমে …

Facebook Comments

Leave a Reply