অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়-এর কবিতা

মাছের লেখা – ৬

সম্ভবত পলিমাটি দিয়ে ভাঁড় তৈরিতে ব্যস্ত লোকটি।
ওই কালো মাটি জিরাফের জিভে দেখেছি।
জিরাফের গঠন সন্তানদিগের উত্তেজিত করে
যেন রাবণের দশটা মাথা চিবিয়ে ফেলবে একলা জিরাফ

ছোট ছোট ডজ দিয়ে যখন মাছ হয়ে ওঠেন
মারাদোনা, স্বস্তি পাই
হাফ প্যান্ট খাকি নয়, ভয় নয়, লজ্জা নিবারণ মাত্র

পুকুর পাড়ে বসে সিগারেট খাই
আমার ছায়াও সিগারেট খায়
শুধু ছায়া হবে না বলে মাছ জল বেছে নিলো…

মাছের লেখা – ৯

বেশ দূরে আকাশের ডান কোনের দিকটায়
বাঘের চোখ জ্বলে; আমি ধরে নিয়েছি ওখানেই
সুন্দরবন; তোমরা বেড়াতে গিয়েছিলে আমরাও
যাব, ত্রাণ দিতে গিয়ে জ্যান্ত কাঁকড়া নিয়ে ফিরবো…

বাঘ একটি পবিত্র প্রাণী, তুমিও দেখনি আমিও দেখিনি
চারিত্রিক দুর্বলতার সাথে পর্যটনের কোনো সম্পর্ক নেই…

লোকটির গা থেকে ভেজা মাদুরের গন্ধ পাই
আখরোট কাঠের টেবিল চৌকো ঘরটিতে
চা রাখার স্থান দিয়েছে
খবরের কাগজ রাখা হয় অন্যত্র…

Facebook Comments

Leave a Reply