যুগলবন্দী :: অরূপরতন ঘোষ ও অনিরুদ্ধ চৌধুরী

fail

[শুধু শারীরিক নয়, এই মানসিক দূরত্বের সময় আমরা চেয়েছিলাম শিল্পীরা কাছাকাছি আসুক। তাই এই উদ্যোগ – যুগলবন্দী। আলাদা আলাদা মাধ্যমে কাজ করা শিল্পীরা একজোট হয়েছেন। সৃষ্টি হয়েছে কবিতা থেকে ছবি বা ছবি থেকে কবিতা। এ’ভাবেই এ’ আয়োজনে কবি অরূপরতন ঘোষ ও শিল্পী অনিরুদ্ধ চৌধুরী।]


কবি পরিচিতি

অরূপরতন ঘোষ

শূন দশকের এই কবি, পশ্চিমবঙ্গের কোলকাতার উপকণ্ঠে থাকেন। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ – ‘ফেরিঘাট’, ‘মর্ত্য’, ‘লং ড্রাইভ’, ‘ধ্বংসস্তূপ’, ‘পূব দেশ থেকে’।
প্রকাশিত গল্পের বই – ‘জাদুকর আজিজুল ও অন্যান্য’ এবং ‘অশোককুমারের একদিন’।
উপন্যাস – ‘সূর্যহীন’।
অনুবাদ গ্রন্থ – লুইস বুনুয়েলের আত্মজীবনী – ‘শেষ দীর্ঘশ্বাস’, পল গঁগ্যার তাহিতির জার্নাল – ‘নোয়া নোয়া’ এবং রোবের ব্রেসঁ’র দীর্ঘ সাক্ষাৎকার ‘সিনেমা প্রসঙ্গে’।
লেখালিখি ছাড়া তাঁর প্যাশন চলচ্চিত্র ও আলোকচিত্র।
সম্পাদনা করেছেন ‘বৈখরী ভাষ্য’ ও ‘নতুন কবিতা’। যুক্ত ছিলেন ‘অবসরডাঙ্গা’ এবং ‘ব্রজী’ পত্রিকার সঙ্গে।

প্রজাতান্ত্রিক কবিতা. ২৬. পরিযায়ী

অরূপরতন ঘোষ

আরিফুলের কবিতার বইটি আমাকে ভাবায়

ওই যে বিপ্‌ বিপ্‌ ধ্বনি
তবে কি গোয়েন্দা আসছেন;

নাকি হরিণের লোভে পড়ে গেছি আমি..
কদম্বগাছিতে বারবার
যাদুকরী আঁশের আশায়
ছুটে যাই। আর বল্কল দেখিয়ে মুহূর্তে সে
সরে যায় দূরে —

প্রভূত জ্যোৎস্নায় আজ এই মনখারাপটিকে
বৎসরনামার মধ্যে ঢুকিয়ে দিয়েছি
দেখেছি, শান্ত হয়েছে সে।

ভাদ্রের সন্ধ্যায়
নিরীহ সাইকেলখানি মুখে রাখি তাই
আমার পুরোনো বন্ধুর মতোই
তা চকচকে হয়ে ওঠে আরেকবার..


শিল্পী পরিচিতি

অনিরুদ্ধ চৌধুরী

পেশাদার চিত্রকর। ১৯৯৬ সালে গভর্নমেন্ট আর্ট কলেজ থেকে স্নাতক। ছবি আঁকার সূত্রে দীর্ঘ ১২ বছর পুনেতে ছিলেন। এখন কলকাতার উত্তর শহরতলীতে থাকেন।

বড় ক’রে দেখার জন্য ছবিটিতে ক্লিক করুন

Facebook Comments

Leave a Reply