যুগলবন্দী :: ইন্দ্রনীল ঘোষ ও সমীরণ ঘোষ

fail

[শুধু শারীরিক নয়, এই মানসিক দূরত্বের সময় আমরা চেয়েছিলাম শিল্পীরা কাছাকাছি আসুক। তাই এই উদ্যোগ – যুগলবন্দী। আলাদা আলাদা মাধ্যমে কাজ করা শিল্পীরা একজোট হয়েছেন। সৃষ্টি হয়েছে কবিতা থেকে ছবি বা ছবি থেকে কবিতা। এ’ভাবেই এ’ আয়োজনে কবি ইন্দ্রনীল ঘোষ ও শিল্পী সমীরণ ঘোষ।]


Indranil Ghosh

কবি পরিচিতি

ইন্দ্রনীল ঘোষ

জন্ম ১৯৭৯। বাংলা ভাষার কবি ও গদ্যকার। ‘বৈখরী ভাষ্য’, ‘ইন্ডিয়ারি’ ও ‘অপরজন’ পত্রিকার সাথে যুক্ত। লেখালিখি বাদেও সিনেমা নিয়ে উৎসাহিত।

ইন্দ্রনীলের এযাবৎ প্রকাশিত বইগুলি কালানুক্রমে,

কবিতা – রাত্রে ডেকো না, প্লিজ (প্রথম প্রকাশ ২০০৫), জুলাইওয়ালা (২০০৯), লোকটা পাখি ওড়া নিয়ে বলছে (২০১২), হারাবার সময় পরনে ছিল (২০২০)

গদ্য – সার্চ করছেন দেবাঞ্জন (২০১৫), নুলোর পৃথিবী ও অন্যান্য গল্প (২০১৬)

কয়েদি

ইন্দ্রনীল ঘোষ

আলোভুখ পাখিদের হাবিলদার
গুলি করছে… চোর ধরছে…
ট’লে পড়ছে মাধ্যাকর্ষণ খেয়ে…

যেমন আপেল পড়ে —
        অনুভূতি-কাশ্মির থেকে
        গুলি-বেঁধা মুহূর্ত থেকে
        লাশেদের ঘটি-বাটি থেকে
কত যুগ ভাষা মুছতে মুছতে হঠাৎ বেরিয়ে পড়ে আকাশ

প্রত্যেকটা ভোর এলে
হাবিলদার স্যালুট ঠোকে —
ক্রমাগত গিঁট বাঁধা নীলে
           একটু একটু ঝুলে পড়ে আলো…
হাবিলদার কেস লেখে,
কয়েদি নম্বর লিখে রাখে


Samiran Ghosh

শিল্পী পরিচিতি

সমীরণ ঘোষ

প্রথাগত শিক্ষার বাইরে ছবি আঁকার ছেলেমানুষী। সেই সূত্রেই বহু পত্রপত্রিকা ও গ্রন্থের প্রচ্ছদনির্মাতা।
প্রকাশিত কবিতাগ্রন্থ : ‘কবিতাসংগ্রহ’, ‘চাঁদলাগা চৌষট্টি আশমান’, ‘অন্তর্বর্তীরেখা’, ‘মরচে গোধূলির পাঠ’, ‘কালো পাথরের হারমোনিয়াম’, ‘মরিচগন্ধের সেতু’, ‘হাড়ের দূরবিন’, ‘হাতআয়নার ঘুম’।

প্রকাশিতব্য : পেনসিলের শ্রুতিধর
অনূদিত নাটক : সুইফটনির্মিত প্রাসাদ

Painting by Samiran Ghosh

বড় ক’রে দেখার জন্য ছবিটিতে ক্লিক করুন

Facebook Comments

Leave a Reply