যুগলবন্দী :: মেঘ অদিতি ও অর্ঘ্য বন্দ্যোপাধ্যায়

fail

[শুধু শারীরিক নয়, এই মানসিক দূরত্বের সময় আমরা চেয়েছিলাম শিল্পীরা কাছাকাছি আসুক। তাই এই উদ্যোগ – যুগলবন্দী। আলাদা আলাদা মাধ্যমে কাজ করা শিল্পীরা একজোট হয়েছেন। সৃষ্টি হয়েছে কবিতা থেকে ছবি বা ছবি থেকে কবিতা। এ’ভাবেই এ’ আয়োজনে কবি মেঘ অদিতি ও শিল্পী অর্ঘ্য বন্দ্যোপাধ্যায়।]


কবি পরিচিতি

মেঘ অদিতি

জন্ম: ৪মে, জামালপুর, বাংলাদেশ

লেখালিখির জগতে আসেন ২০০৭ সালে। মূলত কবিতা লেখেন। পাশাপাশি গদ্য এবং গল্প। এছাড়া অবসর সময়ে ছবি আঁকতে ভালোবাসেন। এ পর্যন্তপ্রকাশিত কবিতা ও গল্পের বইসংখ্যা সাত। বর্তমানে ঐহিক বাংলাদেশ নামক সংগঠনের সংগঠক হিসেবে কাজ করছেন এবং ঐহিক বাংলাদেশ নামক ছোট কাগজের সম্পাদনা করছেন।

ধারাপাত

মেঘ অদিতি

রাতের মোহরে লেখা ওই প্রিয়নাম
তাতেও এখন অনেকটা কুহক এল
অসমাপ্ত কথা জালে জড়ালো উত্তর
আশ্চর্য এই, আজকাল
ছায়ারাও যুদ্ধকালীন দরজা এঁটে
পড়ে চলেছে সংবেদনশীল ধারাপাত
মুছে যাচ্ছে যাবতীয় নম্রতা ও মেধা
চোখ ছাপিয়ে নামছে এত বেদনার্ত অবয়ব ..

প্রভু, আমি কি শুধু এক কথাবলা পাখি
এতসবের পরও একটানা গেয়ে যাব
তোমারই নাম?


শিল্পী পরিচিতি

অর্ঘ্য বন্দ্যোপাধ্যায়

শূন্য দশকের এই কবি খড়গপুর থেকে কলকাতা এসেছিলেন ছবি আঁকা শিখতে। নাড়া বেঁধে শেখেন শিল্পী সমীর ভট্টাচার্যের কাছে। এখন গ্র্যাফিক ডিজাইনারের পেশায়। জার্নালিজম ও মাসকমিউনিকেশনের ছাত্র এই কবি সম্পাদনা করেছেন ‘বৈখরী ভাষ্য’ পত্রিকা। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ – ‘ডিসেম্বর সংহিতা’।

বড় ক’রে দেখার জন্য ছবিটিতে ক্লিক করুন

Facebook Comments

Leave a Reply