যুগলবন্দী :: সমীরণ ঘোষ ও আদিদেব মুখোপাধ্যায়

fail

[শুধু শারীরিক নয়, এই মানসিক দূরত্বের সময় আমরা চেয়েছিলাম শিল্পীরা কাছাকাছি আসুক। তাই এই উদ্যোগ – যুগলবন্দী। আলাদা আলাদা মাধ্যমে কাজ করা শিল্পীরা একজোট হয়েছেন। সৃষ্টি হয়েছে কবিতা থেকে ছবি বা ছবি থেকে কবিতা। এ’ভাবেই এ’ আয়োজনে কবি সমীরণ ঘোষ ও শিল্পী আদিদেব মুখোপাধ্যায়।]


কবি পরিচিতি

সমীরণ ঘোষ

প্রথাগত শিক্ষার বাইরে ছবি আঁকার ছেলেমানুষী। সেই সূত্রেই বহু পত্রপত্রিকা ও গ্রন্থের প্রচ্ছদনির্মাতা।
প্রকাশিত কবিতাগ্রন্থ : ‘কবিতাসংগ্রহ’, ‘চাঁদলাগা চৌষট্টি আশমান’, ‘অন্তর্বর্তীরেখা’, ‘মরচে গোধূলির পাঠ’, ‘কালো পাথরের হারমোনিয়াম’, ‘মরিচগন্ধের সেতু’, ‘হাড়ের দূরবিন’, ‘হাতআয়নার ঘুম’।

প্রকাশিতব্য : পেনসিলের শ্রুতিধর 
অনূদিত নাটক : সুইফটনির্মিত প্রাসাদ 

পেনসিলের শ্রুতিধর

সমীরণ ঘোষ

প্রত্যেকে মৃত। শুধু বেড়ালই খুঁচিয়ে তুলছে
মৃতদের ঘুমের অভিনয়

ডাইরির মাংসে কষা রাত। চামচ ডুবিয়ে তোলা
কোটিবছরের ঘুমে ফুঁয়ের বেড়াল। ইবলিশ
বর্ণনা করছে বাঁ-চোখের শক্ত পাথরে

ধোঁয়ায় ধোঁয়ার কালো গান। কালো সিঁড়ি। সমাধি
দু-ফাঁক। হাড়ের শূন্যে কালো শ্বাসের বাগান
বেড়াল কী অভিনয় করছে লাল মৃতের বরফে

শুধু জল। পরিকীর্ণ প্রাণের পাষাণ


শিল্পী পরিচিতি

আদিদেব মুখোপাধ্যায়

প্রথম দশকের এই কবির জন্ম ১৯৯৪। কবিতার পাশাপাশি ছবি আঁকা তাঁর প্যাশন।
প্রকাশিত বই – ‘আমি ফাটিয়ে দেব’ (২০১৭), ‘ট্রায়ো’ (২০১৮), ‘আগামী পর্দায় দ্রষ্টব্য’ (২০১৯), ‘সমবেত আর্তনাদ’ (২০১৯)। সম্পাদিত পত্রিকা – ‘তৃতীয় বিশ্ব’ (২০১৮)।

বড় ক’রে দেখার জন্য ছবিটিতে ক্লিক করুন

Facebook Comments

Leave a Reply